Home মিরপুরের বেনারসি এসেছে হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যালে

মিরপুরের বেনারসি এসেছে হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যালে

বিয়ের সাজে বাঙালী নারী আর তার পরনে বেনারসি। বেনারসির কথা আসতেই যেন এমনই একটি ছবি ভেসে উঠে আমাদের দৃশ্যপটে।

সৃষ্টিকর্মের প্রাণে বেনারসি মানেই টুকটুকে লাল, রাণী-গোলাপী, সবুজ, নীলসহ বাহারি রঙের উপর জরী সুতোর কারুকাজ।

১৯৩০ এর দশকে বাংলাদেশের পুরান ঢাকার বেচারাম দেউরীতে বেনারসি শাড়ি শিল্পের উৎপত্তি ঘটেছিল। ১৯৪৭ সালের দেশভাগের পর সদরঘাট, ইসলামপুর, নীলক্ষেতে শুরু হয় এর মূখর পদচারণা।

আশির দশককে বলা হয় বেনারসি শাড়ীর স্বর্ণদশক। হোসেন মার্কেটের মিয়াসাহেব বাঙালীদের মধ্যে প্রথম বেনারসি কারখানা গড়ে তোলেন। একটা নির্দিষ্ট সময় পর মূলত মিরপুর এলাকাই এই বেনারসী পল্লী হিসেবে গ্রহণযোগ্যতা পায়।

হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যালের ৪৭টি স্টলের মাঝে একটি কর্ণার যেন হয়ে উঠেছে আলো ঝলমলে এই বেনারসির প্রদর্শনীতে। দর্শনার্থীরা এক ঝলক দেখার জন্য যুক্ত হচ্ছেন এই ফেস্টিভালের বেনারসি কর্ণারে। যেখানে সরাসরি তারা জানছেন এই শিল্পের সাথে জড়িতদের শৈলী ও সৃজনশীলতাকে।

সাদিয়া রশ্নি সূচনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

মোবাইল ফোন সার্ভিসিং পেশার সুনির্দিষ্ট নীতিমালার দাবি

মোবাইল ফোন সার্ভিসিং পেশাটির মূল কাজ হলো নষ্ট ফোনটি সচল করা। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে মোবাইল ফোন একটি অপরিহার্য মাধ্যম। এই গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইস...

সুই–সুতো দিয়ে নকশা তুলে স্বনির্ভর- তন্বী

নাম "তানজিন নাহার তন্বী" কাজই যার মূল পরিচয়। স্বপ্ন দেখেন নিজে কিছু করে স্বাবলম্বী হয়ে নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে সবাইকে চমকে দিতে।

রং-সুতার স্বপ্ন আঁকে-হৈমন্তী

সভ্যতার শুরু থেকেই নারীর সৌন্দর্য, রুচিশীলতা এবং আভিজাত্যের পরিচয় বহন করে তার পোশাক। আর তাই দেশীয় কাপড়ে নিজেদের স্বকীয়তাকে তুলে ধরতে হৈমন্তীর...

সংগীতে সবচাইতে বড় আয়োজন চ্যানেল আই এর সাথে প্রধান পৃষ্ঠপোষক এসএমই উদ্যোক্তাদের ঐক্য

ডিসেম্বরে ঢাকার একটি অভিজাত হোটেলে প্রদান করা হবে ‘ঐক্য চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড ২০২০’। ১৫তম এ আসরের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ঐক্য ফাউন্ডেশন।