ই-কমার্স প্রতারণা বন্ধের আশাবাদ বাণিজ্য মন্ত্রীর

0

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেল আয়োজিত ডিজিটাল কমার্স ব্যবসার সার্বিক বিষয়ে পর্যালোচনা এবং ই-কমার্স ব্যবসা পরিচালনার জন্য ডিজিটাল বিজনেস আইডি প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষে এক সভার আয়োজন করা হয়। এ আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব টিপু মুনশি, এমপি। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এমপি।

min 1

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় মন্ত্রী বলেন, “দেশে ই-কমার্সকে সুশৃঙ্খল এবং জবাবদিহিতার আওতায় নিয়ে আসার জন্য সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশে ই-কমার্সের জনপ্রিয়তা বেড়েই চলছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। দেশের মানুষের ডিজিটাল সুবিধা বা সেবা নিশ্চিত করার জন্য সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের মানুষ এখন ডিজিটাল সেবা উপভোগ করছেন।” বাণিজ্যমন্ত্রী তার বক্তব্যে আরও বলেন, “ই-কমার্সে যে সকল গ্রাহক প্রতারিত হয়েছেন, তাদের সমস্যা সমাধানে সরকার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। প্রতারকদের বিরুদ্ধেও সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। যেসকল গ্রাহকের টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা আছে কিন্তু আইনি কোন জটিলতা নেই, তাদের টাকা ফেরত দেয়ার কাজ চলছে। পর্যায়ক্রমে এ সকল টাকা ফেরত দেয়া হচ্ছে। আজ ডিজিটাল বিজনেস আইডি প্রদানের মাধ্যমে ই-কমার্স একটি নতুন পদ্ধতির আওতায় এলো। এতে করে ই-কমার্সে প্রতারণা অনেক আংশেই কমে আসবে। এ বিষয়ে গ্রাহকদের সচেতন থাকতে হবে।”

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে বাংলাদেশ ডিজিটাল হয়েছে। দেশের মানুষের জন্য ডিজিটাল সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে। দেশের মানুষ যাতে ডিজিটাল প্রতারনার শিকার না হন সে জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হচ্ছে। ই-কমার্স ক্ষেত্রে যে সকল সমস্যা বা প্রতারনার সুযোগ রয়েছে, সেগুলো চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এজন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে।”

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এমপি বলেন, “ই-কমার্সে ডিজিটাল প্রতারনা বন্ধে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। আজ ই-কমার্স ব্যবসা পরিচালনার জন্য ডিজিটাল বিজনেস আইডি প্রদান শুরু করা হলো। ই-কমার্স পরিচালনার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলে এ আইডি গ্রহণ করলে প্রতারণার সুযোগ থাকবে না। ই-কমার্সকে শক্তিশালী বিশ্বস্ত এবং জবাবদিহিতার আওতায় আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতারিত যে কোন গ্রাহক অভিযোগ করলে তার প্রতিকার পাবার জন্য একটি প্লাটফর্ম তৈরী করা হচ্ছে। এ সকল কাজ সম্পন্ন হলে ই-কমার্সের ব্যবসা নিরাপদ হবে।”

min 2

উল্লেখ্য, বাণিজ্যমন্ত্রী ই-কমার্স ব্যবসা পরিচালনার জন্য ডিজিটাল বিজনেস আইডি এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করে ১১টি প্রতিষ্ঠানকে আইডি প্রদান করেন। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- চালডাল লি. ডায়াবেটিস স্টোর, রকমারি ডট কম, আজকের ডিল, সাজগোজ লি., যাচাই ডট কম, তৃনাস ক্লোসেট, নওরীনস মীরর, আঁখিস কালেকশন (ফেসবুক শপ), নিথান (ফেসবুক শপ ও আনন্দমেলা মার্চেন্ট), মম ফানুস (ফেসবুক শপ ও আনন্দমেলা মার্চেন্ট)। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন রেজিষ্টার অফ জয়েন্ট স্টক কোম্পানি (আরজেএসসি) মাই গভ এ্যাপস এর মাধ্যমে ই-কমার্স ব্যবসা পরিচালনার জন্য ডিজিটাল বিজনেস আইডি প্রদান করবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডাক বিভাগের মহাপরিচালক মো. সিরাজ উদ্দিন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেলের প্রধান এ এইচ এম সফিকুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব (মহাপরিচালক, ডব্লিউটিও সেল) মো. হাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত আইজিপি (সিআইডি) ব্যারিষ্টার মাহবুবুর রহমান, শিল্প মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক এর প্রতিনিধি, ই-ক্যাব এর প্রেসিডেন্ট শমি কায়সার সহ সংশ্লিষ্ট ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

সাকিব মাহমুদ,
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here