শ্রেষ্ঠ লোক ও কারুশিল্পী সনদপ্রাপ্ত পারভিন আক্তার

0
উদ্যোক্তা পারভিন আক্তার

উদ্যোক্তাজগতের সেরা কাজের স্বীকৃতি হিসেবে শ্রেষ্ঠ লোক ও কারুশিল্পী পুরস্কার ২০২২ প্রাপ্তিতে রাজশাহীর ‘নকশী ঘর’-এ এখন বাঁধভাঙ্গা আনন্দ। এর স্বত্ত্বাধিকারী পারভিন আক্তার দীর্ঘ আট মাস ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও প্রতিযোগিতার পর ৩০ জুন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আব্দুল মনসুরের হাত থেকে পেয়েছেন শ্রেষ্ঠ লোক ও কারুশিল্পীর সনদ। পাশাপাশি স্বর্ণপদক এবং এক লাখ টাকার পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি।

পুরস্কারটির দীর্ঘ যাত্রাপথ সম্পর্কে পারভিন আক্তার জানান, ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনে বিজ্ঞাপন দিলে আমি সেখানে আবেদন করি। মুলত তিনটি ক্যাটাগরি- যেমন কাঁথা স্টিচ, রূপার অলংকার ও আল্পনা- নিয়ে ৮ মাসের দীর্ঘ প্রক্রিয়া চলে। আমি সেখানে নকশীর কাজ নিয়ে অংশ নেই।

প্রাপ্তির পেছনে তার অনুপ্রেরণা স্বামী এবং পরিবার। তিনি বলেন, পরিবার সাপোর্ট না করলে আসলে অনেক কিছুই করা একজন উদ্যোক্তার সম্ভব হয়ে উঠে না। অন্য সফল উদ্যোক্তাদের দেখলেও অনুপ্রেরণা পাওয়া যায়।

Mehnaz middle 1

উদ্যোক্তা পারভিন বলেন: কষ্টের ফল সব সময় মিষ্টি হয় এ ব্যাপারটা যেমন সত্য, ঠিক তেমনি আমি পরিশ্রমও করেছি। কাজের সময় অনেক উত্থান-পতন দেখেছি। সেই সব কিছুর ফল আমার এ সনদ প্রাপ্তি।

‘প্রথম কাজের জন্য স্বীকৃতি পেলাম। সামনে আরও ভালো কাজ করতে উৎসাহিত হবো,’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ভবিষ্যতে তিনি এ নকশীকাঁথা নিয়ে আরও বেশি কাজ করতে চান।

তরুণদের উদ্দেশে তিনি বলেন: ভালো কিছু কাজ করার মাধ্যমে পুরস্কার অর্জন খুবই গর্বের। পুরস্কার কর্মের মাধ্যমে আসে, আবেগ বা অলসতা থেকে নয়। সবাই কষ্ট করে জীবনে ভালো কিছু অর্জন করার জন্য, এর জন্য প্রয়োজন পরিশ্রম। যে কাজ দ্বারা নিজের ও অন্যের ভালো হয়, সেই কাজ করতে হবে। যে কাজই করুন না কেন, শুধু পুরস্কারের আশায় করলে হবে না; সে কাজ অবশ্যই সৎ উদ্দেশ্যে করতে হবে।

মেহনাজ খান,
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here