উদ্যোক্তা- শায়িমা আক্তার রুমা

খুব আরাম প্রিয় মেয়েটা ঘুম থেকে উঠে-ই এক কাপ চা হাতে পেপার বা টিভি নিউজ নিয়ে বসতো। আয়েশ করে কাটতো যার সারাটাদিন, কল্পনায় উড়ো প্রজাপতি মন, দেশ-বিদেশ ঘুরে বেড়ানো আর মুহূর্তগুলোকে কাঁচা হাতে ক্যামেরা বন্দি করাই যার প্রচন্ড নেশা সেই শায়িমা আক্তার রুমা মেয়েটার জীবনের চিত্রটা এখন একেবারেই ভিন্ন! প্রায়ই সকাল ১০ থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত ওয়ার্ক স্টেশনে কাটিয়ে ক্লান্ত হয়ে বাসায় ফিরতে হচ্ছে। সকালে সেই চায়ের কাপ বা পেপারের পরিবর্তে বিজনেস প্ল্যান, আইডিয়া আর স্ট্র‍্যাটেজি নিয়েই দিন শুরু হয়।

শুরুর গল্পে অনেকটা শখের বশেই অনলাইন বুটিকের যাত্রা, প্রোপার প্লানিং বা স্ট্র‍্যাটেজি সেটআপ কিছুই ছিলো না সেভাবে, যা-ই করা শুধু উদ্দেশ্য একটাই দেশীয় পণ্যের প্রচার এবং প্রসার! বিষয়টাকে আপাত দৃষ্টিতে অতি-রঞ্জিত মনে হলেও আসল বিষয় কিন্তু সেটা-ই। ম্যানেজমেন্ট থেকে মাস্টার্স কমপ্লিট করার পরও জীবনে আরো ভালো কিছু করার তীব্র ইচ্ছে থেকে এমবিএ টাও সম্পন্ন করেন রুমা। ছোট্ট বেলা থেকে ইচ্ছে ছিলো বাবার মতো ব্যাংকার হওয়ার। কিন্তু জীবনের সব চাওয়া নিয়ম করে পূরণ হয় না। পড়াশোনা শেষে বিয়ে, সংসার। যখন রুমা একজন “মা”, তখন বাচ্চাকে ছেড়ে চাকরিতে যোগদানও করতে পারেনি। এমন অনেক ইচ্ছেগুলোকে দায়িত্বের কাছে মাটি চাপা দিতে হয়েছে হাসিমুখে।

জীবনের সুদীর্ঘ সময় শেষ হওয়ার পরও কিছু একটা করার সেই স্পৃহা থেকে আবার নড়েচড়ে বসা। তারুণ্য ফুরিয়েছে তাই কিছুটা দোটানায় পরে যান। মাঝবয়সের কাজে সাড়া মিলবে তো? সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারছিলেন না। তাই খুব কাছের মানুষদের সাথে শেয়ার করলে তাদের সাপোর্ট, সাজেশন যা অনুপ্রেরণা জোগাল খুব। কিন্তু প্ল্যানটা কি ছিল? চল্লিশ ছুঁই ছুঁই বয়সে এসে তো আর ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্ন দেখা যায়না। তাই ডিফারেন্ট কিছু প্ল্যান করতে হলো। পোশাকের উপর দারুন দূর্বলতা আছে রুমার। সেই ছোটবেলা থেকেই পোশাক নিয়ে কাজ করার, নতুন ডিজাইন তৈরী করা, এই সব কিছুই নেশার মতো ছিলো ! এই কনসেপ্ট নিয়েই কিছু করার চিন্তা এলো। ব্যস, তখন থেকেই শুরু হয়ে গেলো অনলাইন বুটিক “ধারা” ডট কম ডট বিডির। একটু একটু করে পথ চলা শুরু তখন থেকেই।

WhatsApp Image 2020 03 28 at 5.15.55 PM
পুরস্কার গ্রহণ করছেন শায়িমা আক্তার রুমা

উদ্যোক্তা শায়িমা আক্তার রুমা বলেন, “কোনো উদ্যোগ শুরু করার জন্য তা সম্পর্কিত জ্ঞান, অভিজ্ঞতা এবং যথাযথ ধারনা নিয়েই শুরু করতে হবে এমনটাই আমি মনে করি। মূলত দেশীয় পণ্য নিয়েই কাজ শুরু করেছি, আমার ব্যবসার মূল মন্ত্রই নিজস্ব ডিজাইনে দেশী পণ্যের প্রসার। মনের ভিতরে বেড়ে উঠা রঙের ক্যানভাসটা বাস্তবে দেশী ফেব্রিকে তুলে ধরা, উডেন হ্যান্ড ব্লক প্রিন্টে সিগনেচার ডিজাইনে নিজস্বতা নিয়েই Dhara.com.bd আজ অনেক মানুষের পছন্দের একটা ব্র‍্যান্ড। দেশে প্রসারের সাথে সাথে আজকাল দেশের বাইরেও অর্ডারের ভিত্তিতে একটু একটু করে পদযাত্রা শুরু করেছি”।

উদ্যোগটার আজ দেড় বছর বয়স পূর্ণ হলো। শুরুটা মাত্রই দেড় বছরের কিন্তু এতো অল্প সময়ে সবার এতো এতো ভালোবাসা, প্রশংসা কুড়িয়েছেন যা সত্যিই অতুলনীয়। কাজের একটা সুন্দর জায়গা তৈরী হয়েছে নিজের এবং বেশ কয়েকজন কর্মীর, শুরুর মুলধন আর এখনকার মুলধনের বড় একটা পার্থক্য যা কিনা উদ্যোক্তাকে খুব কনফিডেন্স দেয়। শেষ সময়েও কিছু একটা করতে পারার যে সাহস, তা ধীরে ধীরে সত্যিই স্বপ্নকে আরো উঁচুতে নিয়ে যাওয়ার জেদ তৈরী করে দিয়েছে।

বিপ্লব আহসান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here