যুগের সাথে তাল মিলিয়ে

0
উদ্যোক্তা আরমান ইউসুফ

এক যুগ আগে কিংবা এর একটু কম সময় আগে পরিবারের ছোট ছেলে আরমান যখন হাজারীবাগে সকাল-সন্ধ্যা কারিগরদের চামড়ার বিভিন্ন জিনিস তৈরি করতে দেখতেন, তখন অন্যরা বেশ অবাক হতেন। তার রক্তে ছিল ব্যবসা। তিনি বসে বসে দেখেতেন বাবা কিভাবে ব্যবসা পরিচালনা করেন। এখন পারিবারিক ব্যবসা আরও বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন উদ্যোক্তা আরমান ইউসুফ। প্রতিষ্ঠানের নাম সিলভা ফুটওয়ার এন্ড লেদার গুডস।

ভাই-বোনের মধ্যে সবার ছোট আরমান। গ্রামের বাড়ি লক্ষিপুর। ঢাকাতে তিনি বড় হয়েছেন। শুরু পারিবারিক ব্যবসায় সময় দিয়েছেন আরমান।

উদ্যোক্তা বার্তাকে তিনি বলেন, ‘প্রায় ছয় বছর ধরে ব্যবসায় জড়িত হয়েছি। পারিবারিক ব্যবসাকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য অনলাইনে ই কমার্স, বিভিন্ন মেলা, বিভিন্ন ইভেন্টে অংশ নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। অফলাইনে ব্যবসা ছিল, দোকান ছিল। ২০১৯ সাল থেকে অনলাইনে প্রথমে প্রচার শুরু করি। চাচা-বাবা সবাই ব্যবসার সাথে জড়িত। এই ব্যবসার মূল উদ্যোক্তা আমার চাচা মোঃ সোলাইমান। তার চেষ্টায় আমাদের ব্যবসা আজ এত বড়।’

InShot 20220709 111054204

তিনি বলেন: যেহেতু পারিবারিক ব্যবসা তাই মূলধন নিয়ে চিন্তা করতে হয় নাই। এটা পারিবারিকভাবেই দেওয়া হয়েছে। পুঁজি ছিলো আনুমানিক ৮০ লাখ টাকা। বর্তমানে আরও বেশি আয় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বাবা-চাচা অনেক পরিশ্রম করেছেন, এখন আমি আমাদের পারিবারিক ব্যবসা আরো উচ্চতর স্থানে নিয়ে যেতে চাই।

পণ্য সম্পর্কে আরমান জানান, নারী-পুরুষ উভয়ের জন্য রয়েছে লোফার, লেদার শু, স্যান্ডেল ও স্লিপার, সুইট লেদার আইটেম, বেল্ট, কার্ড হোল্ডার, কি-রিং, লেডিস পার্স, ব্যাগ, জুতা এবং বর্তমান যুগের ফ্যাশনের সাথে মিলিয়ে উন্নত ও টেকসই কালেকশন। প্রতিটি আইটেম শতভাগ পিউর কাউ লেদার এর। এই পণ্যগুলো নিজেদের ট্যানারির চামড়া দিয়ে নিজেদের কারখানায় তৈরি করা হয়ে থাকে।

আরমানের ফ্যাক্টরিতে মোট ৫০ জন কর্মী কাজ করেন।এছাড়া ৩টি আউটলেট রয়েছে। পাশাপাশি অনলাইন পেজ আছে ‘সিলভা ফুটওয়ার এন্ড লেদার গুডস’।

InShot 20220709 110948487

রপ্তানি প্রসঙ্গে তিনি জানান, রপ্তানি হয় জাপান ও ইটালিসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যবসায়ীরা হোলসেল দামে পণ্য নিয়ে যান।

নতুন উদ্যোক্তারদের প্রতি তার পরামর্শ: নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে। কথায় ও কাজে মিল থাকতে হবে। প্রতিষ্ঠান টিকিয়ে রাখা ও ক্রেতার আস্থা অর্জনে পণ্যের গুণগত মান বজায় রাখতে হবে। জীবনে উন্নতি করতে চাইলে পরিশ্রমী হতে হবে। সফল হওয়ার অদম্য ইচ্ছা থাকতে হবে।

মেহনাজ খান
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here