বিশ্ব উদ্যোক্তা সপ্তাহ

শেষ পর্ব

বিশ্ব উদ্যোক্তা সপ্তাহের নানান আয়োজনে সকলের নজর কাড়ে এর বর্ণিল লোগোটি। অনেকেই আগ্রহ পোষণ করে লোগোর এই বর্ণিলতার কারনটি জানতে৷ নানান রঙে রঙিন এই চক্রাকার বৃত্তটির ভিত্তিগত তথ্য সম্পর্কে জানতে হলে শুরুতেই জানতে হবে রঙ-বর্ণালীর রঙচক্র কি বলছে। রঙ-বর্ণালীতে রঙ আছে মোট ২৬টি। যা শুরু হয় সর্বডান হতে। যদিও কোন রঙটি হতে চক্রটি কম্পাস কাটায় চলতে শুরু করেছে এ বিষয়ে কোনো নির্দিষ্ট তথ্য কখনো প্রকাশিত হয়নি। তবে এই ২৬টি রঙ বিশ্বজুড়ে উদ্যোক্তার কর্ম, সমৃদ্ধি ও যোগাযোগ প্রসারকে বোঝায়। সেই সাথে বোঝায় ভবিষ্যৎ উদ্যোক্তাদের উদ্যোগ নিয়ে কর্ম নির্দেশনার ধারনায় একটি পর্যায়ক্রমিক ধাপকে।

একটা পেন্সিলকে কম্পাসে নিয়ে সাদা কাগজে যেমন একটা বৃত্ত আঁকা যায়, যার সূচনা হয় একটি ক্ষুদ্র বিন্দুর সাহায্যে ঠিক তেমনি এই বৃত্তাকার রঙ-বর্ণালীর একপাশ থেকে শুরু হওয়া এক রঙের ছটা থেকে আরেক রঙ, পরবর্তী রঙ এভাবে আঁকা পুরো সার্কেলটি হল একটি উদ্যোগ প্রসারের প্রতিচ্ছবি। যেখানে উদ্যোগ হলো বৃত্তের কেন্দ্র, আর বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন উদ্যোক্তার পরিশ্রম, সাধনা ও কর্মনিষ্ঠা সেই উদ্যোগকে একটি নির্দিষ্ট ব্যাসার্ধে রেখে ঘূর্নায়মান সমৃদ্ধির কথা বলে। যেই সমৃদ্ধির রঙিন আলোয় আলোকিত পুরো বিশ্ব, ঠিক রং বর্ণালীর মতো।

Untitled 1 5
বিশ্ব উদ্যোক্তা সপ্তাহের শুভেচ্ছা

বিশ্ব উদ্যোক্তা সপ্তাহের সহযোগী কিছু সংগঠন এই লোগোর সাথে নিজেদের লোগোকে জুড়ে দেবার ক্ষমতা রাখেন। যা প্রদর্শন করে বিশ্বজুড়ে উদ্যোক্তাদের নানান উদ্যোগ নিয়ে একযোগে কাজ করার যৌথ একাত্বতা। বিশ্ব উদ্যোক্তা সপ্তাহের উদয় ২০০৮ সালে হলেও এর ভাবনাটি বেশ পুরনো। “ইউইং ম্যারিওন কফম্যান ফাউন্ডেশন” মিসৌরীর কানসাস সিটিতে ১৯৬০ সালের মাঝামাঝিতে প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠাতা ইউইং ম্যারিওন কফম্যান ছিলেন একজন উদ্যোক্তা ও লোকহিতৈষী ব্যক্তিত্ব। তার গড়া ফাউন্ডেশনের লক্ষ্য ছিল একটি সমাজ গড়া যারা হবে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী দায়িত্বশীল নাগরিক এবং সেই সাথে সামাজিকতার মাধ্যমে অন্যান্য নাগরিকদের কর্মসংস্থান গড়তে সক্ষম। আর এই সমাজের ফোকাস এরিয়া ছিল উদ্যোক্তা সমৃদ্ধি গড়ে তোলা এবং এ সম্পর্কিত শিক্ষায় শিশু ও যুবসমাজকে শিক্ষিত করে তোলা।

“ইউইং ম্যারিওন কফম্যান ফাউন্ডেশন” এর সেই পুরনো তত্ত্বের আদলে যুব, মহিলা, গৃহকর্মী ও জনগণ থেকে জাতিগতভাবে লঘু অংশগ্রহন সে সময় নিশ্চিত করে ঠিকই, কিন্তু কালের বিবর্তনে এটিকে এগিয়ে নেয় পরবর্তী প্রজন্ম। এন্টারপ্রাইজ উইক যুক্তরাজ্য নানান ক্যাম্পেইন এর মাধ্যমে জনগণের মাঝে উদ্যোক্তা হবার সুবিধা ও সুযোগের কথা ছড়িয়ে দেয়।

“বিশ্ব উদ্যোক্তা সপ্তাহ ২০১৮” উপলক্ষে উদ্যোক্তা বার্তার শুভেচ্ছা, সকল উদ্যোক্তার সমৃদ্ধির জন্য।

 

সাদিয়া সূচনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here