এক কঠিন সময়ে চাকরি খুঁজতে গেলে এক নিকটাত্মীয় দেড় লাখ টাকা দিয়ে টাকা হাতে দিয়ে বলেছিলেন- “শুরু করেছো ব্যবসা দিয়ে। চাকরি তোমাকে দিয়ে হবে না। বরং ব্যবসা শুরু করো আবার।” আর তাতেই নতুন যাত্রা শুরু উদ্যোক্তা ছৈয়দ মোহাম্মদ শোয়াইব হাছানের। আর আজ তিনি একজন সফল উদ্যোক্তা হিসেবে পেলেন বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা (পুরুষ) সম্মাননা।

p1 1

উদ্যোক্তা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন মৌমাছির চাষ, অ্যাকুরিয়াম ফিশ ব্রিডিং, হর্টি কালচার ও পোলট্রি ফার্মের ব্যবসা দিয়ে নিজের কর্মযাত্রা শুরু করেন। হঠাৎ একটা ধাক্কা আসলে তিনি কিছুটা বিচলিত হলেও দমে যান নি। নতুন উদ্যোম নিয়ে শুরু করেন অসীমের উদ্দেশ্যে যাত্রা।

p666666

শোয়েব হাছানের বাবা দেশের বাইরে থেকে আমদানীকৃত নুডলসের ডিলার। উদ্যোক্তা দেখলেন দেশেই যদি একই মানের নুডলস উৎপাদন করা যায় তাহলে দেশের চাহিদা দেশেই পূরণ করা সম্ভব। ১৯৯৮ সালে ছোট ভাই ও তিন কর্মচারী নিয়ে শুরু যাত্রা। এভাবেই যাত্রা শুরু হয় হিফস এগ্রো ফুড ইন্ডাস্ট্রিজের। ধীরে ধীরে সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে বাড়িয়েছেন ব্যবসা। আগের পোলট্রি ফার্ম বন্ধ হয়ে এখন সেখানে লাচ্ছা সেমাই কারখানা। আর, পাশাপাশি চালু করেছেন চানাচুর উৎপাদন।

p000

২০০৮সাল থেকে উদ্যোক্তা কোমল পানীয় উৎপাদন শুরু করেন। নিজস্ব ব্রান্ডের তৈরি ড্রিংকস ভারতে রপ্তানি করতে শুরু করেন। ২০১২ সালে এসএমই ফাউন্ডেশনের আয়োজিত ফুড সেফটি ম্যানেজমেন্ট কোর্সে। সেখান থেকে প্রশিক্ষণ তার কর্মপথে বিশাল ভূমিকা রাখে।

p5555555555

বর্তমানে তার প্রতিষ্ঠানের পণ্য আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, ভারত, নিউজিল্যান্ড, মালয়েশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, ল্যাটিন আমেরিকা সহ বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হচ্ছে। বর্তমানে তার রপ্তানি মূল্য দাঁড়িয়েছে ৩.২মিলিয়ন ডলার। শোয়েব হাছান হার না মানা একজন তরুণ। অদম্য মনোবল আর দৃঢ় আত্মবিশ্বাস তার জয়ের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে প্রতিদিন।

মশিউর শাফী,
ডেস্ক রিপোর্ট, উদ্যোক্তা বার্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here