স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরগরম হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যাল

0

স্বাস্থ্যবিধি মেনে জমে উঠেছে হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যাল ২০২২ । গত ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যালের আজ মেলার শেষ দিন।

শতভাগ দেশী পণ্যের স্টল হওয়ায় ক্রেতা দর্শনার্থীদের বেশ সাড়া পেয়েছে এই উৎসবে।জামদানী, সিল্ক, মনিপুরী, তাঁত, তন্তুজ, বেনারসি, কাতান, ভেজিটেবল ডাই সহ বিভিন্ন প্রকার শাড়ি, পাহাড়ি এবং ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের পোষাক, গহনা, লেদার, পাট, বেত, কাঠ, কাঁসা, পিতল, রিক্সা পেইন্ট সহ বয়ন শিল্প এই মেলার আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দুতে।অর্ধ শতাধিক স্টলে উদ্যোক্তারা তাদের উদ্যোগ সাজিয়েছেন বাহারি নান্দনিকতা দিয়ে।

fair 3
হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যাল

আনা ফ্যাশন বুটিকস’র উদ্যোক্তা বললেন, ”মেলায় বেশ সাড়া পাচ্ছি আমরা।ক্রেতা সাধারণ বেশ উৎসাহের সাথে আসছে, ক্র‍য় করছে এবং অর্ডার করে যাচ্ছে।”

জামদানি দিয়ে সাজানো রঙিন স্টল মম জামদানির উদ্যোক্তা বললেন, ‘ক্রেতা সাধারন আসছে অনেক বেশি।একদম দেশী পণ্যের এই মেলা উদ্যোক্তাদের জন্য বেশ উপকারী। আমাদের পণ্যের ব্যাপারে মানুষ আরও বেশি জানতে পারছে এমনকি দেশের বাইরের ক্রেতারাও বেশ সমাগম হচ্ছে।’

আসাম হ্যান্ডলুম বায় লাহে লুমস’র উদ্যোক্তার কাছে আমরা বাংলাদেশে এই উৎসবে অংশগ্রহণের অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, “বাংলাদেশী মানুষ বরাবরই অনেক বেশি বন্ধুত্বসুলভ সম্পর্কে বিশ্বাসী।তারা আমাদের ডিজাইন উপভোগ করছে, কেনাকাটা করছে এতে সত্যিই আমি অনেক অভিভূত।” তিনি এই আয়োজনের সাথে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, “দেশী ভালোবাসি, বাংলাদেশকে ভালোবাসি।”

fair 2

মেলার সার্বিক আয়োজন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে মেলার আয়োজক এবং অ্যাসোসিয়েশন অব ফ্যাশন ডিজাইনার্স বাংলাদেশ’র (এএফডিবি) সভাপতি মানতাসা আহমেদ বলেন, “এই মেলার সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি হচ্ছে দেশের উদ্যোক্তাদের ব্র‍্যান্ডিং হওয়া।বাংলাদেশের ব্র‍্যান্ডিং হচ্ছে এটা সত্যিই আমার জন্য আয়োজক হিসেবে অনেক বড় পাওয়া।গত ৩ বারের থেকে এইবার ক্রেতা সাধারন বেশি উপভোগ করছে সাথে উদ্যোক্তারাও তাদের উদ্যোগ সরাসরি প্রদর্শন করছে যা তাদের জন্য অনেক বড় সুযোগ বিদেশী ক্রেতাদের আকর্ষন করার।”

এই আয়োজনে মেলা ছাড়াও প্রতিদিন আয়োজন হচ্ছে উদ্যোক্তা, উদ্যোগ এবং বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কিত বিশেষ সেমিনার এবং দেশী উদ্যোক্তাদের তৈরী পোষাকের নান্দনিক ফ্যাশন শো।

চারদিন ব্যাপী এই আয়োজনের আজ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২২ মেলার শেষদিন, প্রতিদিনের মত সকাল ১১ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

সাকিব মাহমুদ,
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here