স্বপ্ন পূরণের কারিগর স্কুটি কন্যা স্নেহা

0

পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও পিছিয়ে নেই। ঘরে বাইরে সব জায়গায় সমান দাপটের সাথে কাজ করে যাচ্ছে নারীরা। অফিস,আদালত কিংবা সন্তানদের নিয়ে স্কুলে যাতায়াতে অনেক রকম বিড়ম্বনার সম্মুখিন হতে নারীদের। তাই নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করতে অনেকেই বেছে নেয় স্কুটিকে। আর এসব নারীদের স্কুটি চালানোকে সহজ করে দিতে স্নেহা ২০১৭ সাল থেকে চালু করেন স্কুটি প্রশিক্ষণ দেয়া। যেখানে নারীরা নির্ভয়ে সহজ এবং স্বাচ্ছন্দে দ্রুত স্কুটি শিখতে পারছেন।

2 9

নিজের করা ডিপিএস ভেঙ্গে ২০১৬ সালে প্রথম স্কুটি কেনেন মুনতানিম স্নেহা। পরিবারের সবার অনিচ্ছা সত্ত্বেও নিজের জেদ এবং সাহসিকতা দিয়ে বন্ধুর সহযোগিতায় প্রথম স্কুটি চালানো শিখেন। তখন থেকে তিনি উপলব্ধি করেন, হাজারো মেয়ের স্কুটি চালানোর স্বপ্ন থমকে আছে শুধুমাত্র ট্রেনিং এর অভাবে৷ সিদ্ধান্ত নিলেন, মেয়েদের স্বপ্ন পূরণে কাজ করবেন। ২০১৬ থেকে শুরু হলেও অফিশিয়ালি ২০১৭ সালে ফেসবুক পেজ এর মাধ্যমে চালু করলেন “উইমেনস স্কুটার স্কুল বিডি”। এখন পর্যন্ত এক হাজারের অধিক নারীদের স্কুটি প্রশিক্ষণ দিয়েছেন মুনতানিম স্নেহা। তাদের বেশিরভাগই ছিল কর্পোরেট চাকরিজীবী, গৃহিণী এবং বিসিএস ক্যাডারসহ কলেজ পড়ুয়া ছাত্রী।

4 4

মুনতানিম স্নেহা প্রাইম ইউনিভার্সিটিতে এমবিএ করছেন। পড়াশুনার পাশাপাশি বিভিন্ন বয়সের নারীদের স্কুটি ট্রেনিং দিয়ে থাকেন। ধানমন্ডি,উত্তরা এবং মিরপুরে ব্যাচ অনুযায়ী ট্রেনিং দিয়ে যাচ্ছেন। মুনতানিম স্নেহার কাছে তার অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, “যখন দেখি আমার স্টুডেন্টগুলো নিজে স্কুটি চালিয়ে অফিস কিংবা তাদের কর্মস্থলে যাচ্ছে তখন নিজেকে সার্থক মনে হয় এবং খুব গর্ব বোধ করি তাদের স্বপ্ন আমি পূরণ করতে পেরেছি”।

3 8

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানতে চাইলে উদ্যোক্তা বার্তাকে বলেন, “ভবিষ্যতে একটি বড় প্লাটফর্ম করার ইচ্ছা আছে যেন আমার সাথে আরো অনেকে কাজ করতে পারে এবং আরো অনেক নারীদের স্বপ্ন পূরণের অংশীদার হতে চাই”।

সেতু ইসরাত
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here