মা ছিলেন উদ্যোক্তার বড় অনুপ্রেরণা

0

পড়াশুনা শেষ করে, এক সময় হয়ে ওঠেন স্কুল শিক্ষিকা। সেই কাজের ভেতরেই আনন্দ খুঁজে পান দিল আফরোজা রব। কিন্ত, জীবনে কত শত উত্থান পতনের ভেতর দিয়ে যেতে হয় আমাদের প্রতিনিয়ত। সন্তান হবার পর উদ্যোক্তা বুঝতে পারলেন চাকরির সাথে তাল মিলিয়ে চলাটা বেশ কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। নতুন কিছু করার চেষ্টা করতে হবে নিজে থেকে।

ছোটবেলা থেকেই মাকে দেখে বড় হয়েছেন। মা ছিলেন একজন উদ্যোক্তা। নানা রকম নকশী সেলাই দিয়ে তিনি নিজের কাজ ফুঁটিয়ে তুলতেন। মনে পরে গেল মায়ের কথা। উদ্যোক্তা দিল আফরোজা রব এবার নিজেই কিছু করার জন্য সচেষ্ট হলেন।

3 24

সেই তাগিদ থেকে ২০১৯সালে শুরু করলেন নিজের প্রতিষ্ঠান “জয়া বুটিক্স”। শুরু থেকেই তার পাশে ছিলেন তার পরিবারের সদস্যরা। প্রতিনিয়ত সাপোর্ট পেয়েছেন উদ্যোক্তা রব। এখন তার বুটিক্সে বাটিক, ব্লক সহ অসাধারণ সব পণ্য দিয়ে ভরপুর। প্রতিদিন প্রায় ৬-৭জন কর্মী কাজ করেন উদ্যোক্তার উদ্যোগে।

2 25

উদ্যোক্তা দিল আফরোজা রব বলেন, “আমি প্রথমে ভাবিনি এতোটা সফল হবো। ধীরে ধীরে আরও এগিয়ে যেতে চাই। আর, আরও অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে চাই।”

উদ্যোক্তার বর্তমানে নিজস্ব আউটলেটও আছে মোহাম্মদপুরের নূর জাহান রোডে। এভাবেই শত শত তরুণ তাদের চ্যালেঞ্জ নিয়ে ঝাঁপিয়ে পরে একসময় সফল হয়ে ওঠেন।

মশিউর শাফী,
ডেস্ক রিপোর্ট, উদ্যোক্তা বার্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here