মায়ার নতুন স্বপ্নের সূচনা

0

নারীদের প্রসাধনী পণ্য, পোষাক, বিউটি পার্লার সহ বহুমুখী উদ্যোগ নিয়ে শোরুম শুরু করলেন উদ্যোক্তা রাবেয়া আকতার মায়া। তার দীর্ঘদিন করা পরিশ্রম আর আত্মত্যাগের প্রতিফলন হলো আজকের মায়া ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড।

বিসিক, এসএমই ফাউন্ডেশন, তৃনমূল নারী উন্নয়ন সোসাইটি সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে ফ্যাশন ডিজাইনিং, পার্লার পরিচালনা, উদ্যোক্তা হওয়া সহ বিভিন্ন কোর্স সম্পন্ন করে সময়ের সাথে নিজেকে ঝালিয়ে নেন উদ্যোক্তা। অবশেষে আজ ২ ফেব্রুয়ারি তার উদ্যোক্তা জীবনের নতুন মোড় দেওয়ার লক্ষ্যে উদ্বোধন করেন তার নিজের শোরুম।

2.Midle photo 2

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়নগঞ্জ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কামিজা ইয়াসমিন। তিনি উদ্যোক্তা বার্তা কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, “মায়ার মতো নারীরা এভাবেই এগিয়ে যাবে আর তাদের হাত ধরেই এগিয়ে যাবে আমাদের দেশ।আমি খুবই আনন্দিত নারীদের এই এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গী হতে পারছি বলে।” আয়োজনের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিক নারায়নগঞ্জ এর সহকারী মহা ব্যবস্থাপক আশিকুর রহমান। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, “বিসিক বরাবরই নারীদের অগ্রগতিতে পাশে থেকেছে।সিএমএসএমই বা এসএমই উদ্যোক্তারা তাদের কর্মযজ্ঞের মাধ্যমে দেশে এক বিপ্লব সৃষ্টি করবে বলে আমার বিশ্বাস।”

উদ্যোক্তা রাবেয়া আক্তার মায়ার এই পথচলায় সবথেকে বেশি তার পাশে থেকেছেন আরেকজন সফল নারী উদ্যোক্তা এবং তৃনমুল নারী উদ্যোক্তা সোসাইটি, নারায়ণগঞ্জ এর সভাপতি নার্গিস আহমেদ। একজন উদ্যোক্তা হয়ে আরেকজন উদ্যোক্তার পথচলার সাথী হতে পারার অনুভুতি জানতে চাইলে তিনি জানান, “আমার জীবনের সেরা মূহুর্ত গুলোর একটা বলতে পারি আমি এই সময়কে।আমি নিজে একজন উদ্যোক্তা হয়ে তাকে সাহায্য করতে পেরেছি এটা ভাবলে সত্যিই আনন্দে মন ভরে যায়।”

34

রাবেয়া আক্তার মায়ার এই স্বপ্নের পথে তার বাবা, মা এবং স্বামী সবসময় সহায়তা করেছেন। তারা পাশে থেকে তার কাঁধে হাত রেখে এগিয়ে যেতে বলেন এবং আজকের স্বাবলম্বী অবস্থানে যেতে সহায়তা করেন। আজকে তাই তার এই সফলতা দেখে তার বাবা, মা আনন্দ অশ্রু বিসর্জন করেন। মায়া ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড এর স্বত্বাধিকারী রাবেয়া আক্তার মায়া আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন নিয়ে মাটি থেকে পথচলা শুরু করেছেন। তার এই স্বপ্ন এবং স্বপ্নের পথে কর্মই তাকে একদিন দূর আকাশের বুকে নিজের পরিচয় তুলে ধরবেন বলে তিনি মনে প্রানে বিশ্বাস করেন।

সাকিব মাহমুদ,
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here