বিসিকের পরিবেশবান্ধব ১৪ তলা প্রধান কার্যালয় উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

0

রাজধানীর তেজগাঁও শিল্প এলাকায় নির্মিত বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (বিসিক) এর পরিবেশবান্ধব নতুন ১৪ তলা সদর দপ্তর উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী মাদারীপুর বিসিক শিল্পনগরী (সম্প্রসারণ) প্রকল্পসহ মোট ৪টি প্রকল্প উদ্বোধন এবং ঘোড়াশাল পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঘোড়াশাল থেকে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) চেয়ারম্যান শাহ মো. ইমদাদুল হক। শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি, শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব জাকিয়া সুলতানা বিআইসিসি থেকে বক্তব্য দেন। বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকিও বক্তৃতা করেন। উপস্থিত ছিলেন বিসিক চেয়ারম্যান মুহঃ মাহবুবর রহমান।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত বিসিকের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে সংযুক্ত থেকে বিসিক প্রধান কার্যালয়, মাদারীপুর বিসিক শিল্পনগরী (সম্প্রসারণ), ‘বিটাকের কার্যক্রম শক্তিশালী করার লক্ষ্যে টেস্টিং সুবিধাসহ টুল ইনস্টিটিউট স্থাপন’ এবং বিএসইসির ‘এলইডি লাইট (সিকেডি) অ্যাসেমব্লিং প্ল্যান্ট স্থাপন’ প্রকল্প উদ্বোধন করেছেন।

বিসিকের কার্যক্রম সম্প্রসারণ এবং উন্নত কর্ম পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে ৮৪ কোটি টাকা খরচে তেজগাঁও এলাকায় নির্মিত হয়েছে ১৪ তলা বিসিক প্রধান কার্যালয়।

bisic 1

এ প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে বিসিকের মতিঝিলস্থ অফিস ভবনের সব কার্যালয়সহ ঢাকাস্থ অন্যান্য অফিস একই ভবনে স্থানান্তর এবং আঞ্চলিক কার্যালয় ও প্রকল্প অফিসগুলো একই ভবনে স্থানান্তরের মাধ্যমে ভাড়া বাবদ দেওয়া সরকারি অর্থ সাশ্রয় হবে। বিসিক প্রধান কার্যালয়ে কর্মরত প্রায় ৫০০ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীর জন্য অফিস কক্ষ বা ওয়ার্ক স্টেশনের সংস্থান হয়েছে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।

বিসিক প্রধান কার্যালয়ে ১ লাখ ২৬ হাজার ৯০০ বর্গফুট জায়গার সংস্থান রয়েছে। ভবনটিতে সোলার সিস্টেম, রেইন ওয়াটার হারভেস্টিং ব্যবস্থাসহ পরিবেশবান্ধব অন্যান্য ব্যবস্থা রয়েছে। দুটি বেজমেন্টে ৬৪টি গাড়ি পার্কিং সুবিধা, ৪টি প্যাসেঞ্জার লিফটসহ ১৪ তলা ভবন, মাল্টিমিডিয়া সুবিধাসহ বিভিন্ন সভা বা সেমিনার পরিচালনার জন্য ৪টি কনফারেন্স কক্ষের ব্যবস্থা, বিসিক প্রধান কার্যালয়ে কর্মরত প্রায় ৫০০ জন কর্মকর্তা কর্মচারীর জন্য অফিস কক্ষ বা ওয়ার্ক স্টেশনের সংস্থান, সব কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীর একই ভবনে সমন্বিতভাবে স্বল্প সময়ে সব কার্যক্রম পরিচালনা; ভবনের নিচতলায় কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোক্তাদের জন্য ৩ হাজার ৮৪১ বর্গফুট জায়গায় পণ্য প্রদর্শনীর সংস্থান, মাল্টিমিডিয়া ও আধুনিক সুবিধা সংবলিত ৩টি প্রশিক্ষণ কক্ষের ব্যবস্থা, প্রত্যেক ফ্লোরে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক ওয়াশ রুমের ব্যবস্থা, প্রত্যেক ফ্লোরে ফায়ার ফাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এতে অফিস ভাড়া বাবদ প্রতি বছর প্রায় ৫০ লাখ টাকা সাশ্রয় হবে।

মাদারীপুর সম্প্রসারণ প্রকল্প
বিসিক ১৯৮৭ সালে মাদারীপুর জেলায় ১৬.৩৩ একর আয়তন বিশিষ্ট একটি শিল্পনগরী প্রতিষ্ঠা করে। এ শিল্পনগরীতে বর্তমানে ৯৩টি শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এর মধ্যে তেলের মিল, বেকারি, আটা-ময়দা-সুজির কারখানা, পিভিসি পাইপ, ফার্নিচার ও অ্যালুমিনিয়াম কারখানা উল্লেখযোগ্য।

প্রকল্পটি ৫৩ কোটি ৯৯ লাখ ৭৩ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০.০৫৫ একর জমিতে বাস্তবায়িত হয়েছে। প্রকল্পটিতে মোট শিল্প প্লটের সংখ্যা ১৫৮টি এবং ৭,০০০ নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রকল্পটিতে সম্ভাব্য শিল্প খাতগুলো হলো, খাদ্য ও খাদ্যজাত সামগ্রী, বস্ত্র ও বস্ত্রজাত সামগ্রী, অটোমোবাইল সার্ভিসিং, ইলেকট্রিক ও ইলেক্ট্রিক্যাল সামগ্রী, সাইকেল ও মোটরসাইকেলের খুচরা যন্ত্রাংশ তৈরি, কাঠের আসবাবপত্র, স্টিলের আসবাবপত্র, গবাদিপশুর খাদ্য তৈরি ইত্যাদি।

ডেস্ক রিপোর্ট,
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here