নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কাজ করছেন উদ্যোক্তা আয়েশা

0

মেকওভার, আয়ুর্বেদিক স্কিন কেয়ার ট্রিটমেন্ট, হেয়ার ট্রিটমেন্ট, কালার, ফেসিয়াল, হেয়ার রিবন্ডিং, ম্যানিকিউর, পেডিকিউর, স্পা, মেহেন্দি, হেয়ার স্টাইল ইত্যাদি সহ আরো বেশকিছু সেবা নিয়ে বিউটি সেক্টরের উদ্যোক্তা জীবনে আশা ‘ ক্লাসি পার্লজ বিউটি স্যালন এন্ড স্পা’ এর প্রতিষ্ঠাতা আয়েশা খাতুনের। যদিও ফেসবুক পেইজে আয়েশা মিষ্টি নামেই বেশি পরিচিত এই উদ্যোক্তা।

রাজশাহীতে খুব কম সংখ্যক পার্লারে আয়ুর্বেদিক স্কিন কেয়ার ট্রিটমেন্ট এর ব্যবস্থা থাকে।যে সেবা ক্লাসি পার্লজ বিউটি স্যালন এন্ড স্পা দিচ্ছে। এবং খুব অল্পদিনে রাজশাহীতে এটি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে বলে জানান উদ্যোক্তা আয়েশা খাতুন।

2 19

এই প্রতিষ্ঠান থেকে দৈনিক আয়ের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি উদ্যোক্তা বার্তাকে বলেন
‘ব্রাইডাল মেকআপ থাকলে ১০ থেকে ১৫ হাজার, না থাকলে ৪ থেকে ৫ হাজার দৈনিক আয় করছেন আয়েশা।তবে মাঝে মধ্যেই এই হিসেব কম- বেশি হয়ে থাকে।’ ইচ্ছে থাকা শর্তেও যারা অর্থের অভাবে পার্লারের সেবা নিতে পারেন না সেসকল মা-বোনদের জন্য ফ্রিতেই সেবাগুলো দিচ্ছে ক্লাসি পার্লস বিউটি স্যালন এন্ড স্পা।

সাজাতে ভালো লাগা থেকেই ‘বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এবং স্কিল ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (এসইআইপি) এর বিউটিফিকেশন এন্ড অন্টাপ্রেনিউরশিপ ডেভেলপমেন্ট ট্রেনিং করেন আয়েশা।

3 18

কখনো কম্পিউটার প্রশিক্ষক, আবার কখনো কেক নিয়ে কাজ করা আরো বিভিন্ন সময়ে নানা কাজের মাধ্যমে যে অর্থ আসতো সে জমানো অর্থ গুলো কাজে লাগিয়ে এই বছরের মার্চ মাসে আনুষ্ঠানিক ভাবে আয়েশার ‘ক্লাসি পার্লজ বিউটি স্যালন এন্ড স্পা’ এর যাত্রা শুরু হয়।

এর আগে ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি,রাজশাহী থেকে ডেন্টাল কোর্স শেষ করেন আয়েশা খাতুন।তবে ডেন্টিস্ট হিসেবে কাজ করতে কখনোই খুব একটা ভালো লাগতো না তার।পরিবার চাইতো মেয়ে আমার ডেন্টিস্ট হয়ে সেবা করুক, মেয়ে চাইতো আমি আরো দশ জনের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবো।এভাবেই বিভিন্ন সময়ে ডেন্টাল, কম্পিউটার,বেকিং,গ্রাফিক্স ডিজাইন বিউটিশিয়ান সহ আরো কয়েকটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ নেন আয়েশা।এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষক হিসেবেও কাজ করেন দীর্ঘদিন।

এই উদ্যোক্তার জন্মস্থান চাঁপাইনবাবগঞ্জ হলেও পড়াশোনা এবং বৈবাহিক সূত্রে এখন তিনি রাজশাহী নগরীতেই স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। ছোটবেলা থেকেই ঘরোয়া বা বৃহৎ পরিসরের যে কোন আয়োজনে নিজে সাজতে এবং অপরকে সাজাতে পছন্দ করতেন আয়েশা।কাজের জন্য প্রসংশাও কুড়াতেন ব্যাপক।

4 10

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন ঘোষপাড়া মোড়ে আয়েশার ক্লাসি পার্লজ বিউটি স্যালন এন্ড স্পা অবস্থিত। বর্তমানে দু’জন সহযোদ্ধাকে সাথে নিয়ে কাজ করছেন তিনি।খুব শীঘ্রই আরো বেশকয়েকজন নারীর কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে আশাব্যাক্ত করেছেন এই নারী উদ্যোক্তা।

মা-বোনরা যাতে তাদের বাচ্চাদের নিশ্চিন্তে এনে সেবা গুলো গ্রহণ করতে পারে তাই একই ছাদের তলায় পার্লারের পাশে বাচ্চাদের খেলার জায়গা,এবং আয়েশা মিষ্টির নিজ হাতে বানানো পেস্ট্রি গুলোর স্বাদ ও যাতে সকলে গ্রহণ করতে পারে সে জন্য একটি পেস্ট্রি শপ ও গড়তে চান এই আত্নবিশ্বাসী নারী উদ্যোক্তা। এই স্বপ্নগুলো পূরণের লক্ষ্যে সামনে এগোচ্ছেন স্বপ্নবাজ এই তরুণী।

অন্য নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারা আয়েশা কে নিয়ে মা- বাবা,বর সকলেই এখন গর্বিত।

তামান্না ইমাম
উদ্যোক্তা বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here