সরকারের পালা বদল হয়েছে অনেকবার কিন্তু শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে নারীদের ক্ষমতায়নের ব্যাপারে উদ্যোক্তা তৈরি করার ক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে উৎসাহ দেয়ার বিষয়ে যে অগ্রগতি হয়েছে এটা অদ্বিতীয়। তার বিকল্প আছে বলে মনে হয় না বলে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাহাজান খান, এমপি

মন্ত্রী বলেন, অনেক সময় অনেক রাষ্ট্রপ্রধান এসেছেন  সরকার এসেছেন সে সময় নারী-পুরুষ ছিল এবং  হাসিনা সরকারের সময়ও নারী-পুরুষ আছে কিন্তু নারীদের ক্ষমতায়নের ব্যাপারে, উদ্যোক্তা তৈরি করার ক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে উৎসাহ দেয়ার বিষয়ে এই সরকারে যে অগ্রগতি হয়েছে এটা অদ্বিতীয়। আর এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য অবশ্যই আজকের আয়োজন একটি মহৎ উদ্যোগ কারণ এই আয়োজনের মাধ্যমে অনেক ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তারা অনুপ্রেরণা পাচ্ছেন। তারা অর্থনীতিতে অবদান রাখছেন শিল্প খাতে অবদান রাখছেন, আমি ধন্যবাদ জানাবো সকল উদ্যোক্তাদের।

IMG 20201009 WA0022

তিনি আরো বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনি সবসময়ই নারী উদ্যোক্তাদের অনুপ্রেরণা দিয়ে থাকেন। দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা যেহেতু নারী তাই সেই নারীদের এগিয়ে আসার জন্য সকল ধরনের লজিস্টিক সাপোর্ট দিচ্ছেন এমনকি লোন পাওয়ার ক্ষেত্রেও সুদের হার ৫% এ নিয়ে এসেছেন। শুধু উদ্যোক্তা নয় সকল ক্ষেত্রেই নারীদের অগ্রগতি হলে সামাজিক, অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক ভাবে বিশাল পরিবর্তন আসবে বলে আমি মনে করি”।

এছাড়াও তিনি সমসাময়িক ধর্ষণ ইস্যু নিয়েও বিভিন্ন কথা বলেন এবং আশ্বাস দেন। আজ ধানমন্ডি ২৭শে ডব্লিউভিএ অডিটোরিয়ামে ঢাকা সেন্ট্রাল মিট আপ ২০২০ উপলক্ষে নারী উদ্যোক্তাদের “ব্যবসায়িক সমস্যা ও সমাধান” শীর্ষক আলোচনা সভা এবং পণ্য প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে এমন বক্তব্য রাখেন। 

IMG 20201009 WA0018

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন (ভার্চ্যুয়ালি) আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ডিজাইনার ও উদ্যোক্তা বিবি রাসেল, উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য মারুফা আক্তার পপি, জয়যাত্রা টেলিভিশন এর চেয়ারম্যান এবং এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীর, জি টিভির প্রধান সম্পাদক এবং সাংবাদিক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, সিনিয়র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব এ এইচ এম কামরুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া উপ কমিটির সদস্য মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি জনাব এডভোকেট আসাদুজ্জামান দুর্জয়। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সফল উদ্যোক্তারা, ছিলেন সাংবাদিক এবং মিডিয়া কর্মী, সংগঠনের মডারেটরসহ আরো অনেকে সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ।

IMG 20201009 WA0021

মূলত উদ্যোক্তা নির্ভর একটি সংগঠন ‘নারী উদ্যোক্তার খোঁজে’ তাদের সোশ্যাল মিডিয়া নিভর্র গ্রুপে বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নেয়। অসহায়দের অর্থনৈতিক এবং খাদ্য সহযোগীতার পাশাপাশি যারা ঘরে আছেন, বন্দী মনে করছেন তাদের মানসিক সুস্থতার জন্য কিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করেন।

অনলাইনে জুম প্লাটফর্ম ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের কারিগরি প্রশিক্ষণ, ব্লক, বাটিক, টেইলারিং, পেইন্টিং ইত্যাদি বিষয়ে শেখানো হয়। যেহেতু কোভিড মহামারীর জন্য সাধারণ চলাচলে বাধা। তাই পুরো প্রক্রিয়াটা চলে ভার্চ্যুয়ালি। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই আয়োজনে অংশগ্রহণের সুযোগ রাখা হয়। ৩৭ জনকে আয়োজনের প্রতিযোগী হিসেবে অংশ গ্রহণের জন্য সিলেক্ট করে।  এরপর IS OF WE ক্লাস রুমের মাধ্যমে তাদের নিয়ে পরিচালিত হয় গ্রুমিং সেশন। দীর্ঘ এক মাস জুমের মাধ্যমে তাদের ফ্যাশান ডিজাইন সম্পর্কে কিভাবে পোর্টফলিও তৈরি করতে হয়, কিভাবে স্কেচ আকঁতে হয় সাথে রং, সুতা, ফেব্রিক্স, ডিজাইন সম্পর্কেও ধারণা দেওয়া হয়। 

IMG 20201009 WA0027

এক মাস প্রশিক্ষণের পর প্রতিযোগীরা তাদের নিজেদের নকশাতে তাদের পোর্টফলিও এবং পোশাক প্রস্তুত করে জমা দিতে সক্ষম হয়। তিনটি ক্যাটাগরিতে এই প্রতিযোগীতা পরিচালিত হয়। জামদানী, গামছা এবং টাই-ডাই বা বাটিক। সেই আয়োজনটির ফলাফল ঘোষণা পূর্বে হলেও পুরস্কার বিতরণি অনুষ্ঠান হয় আজ ৯ই অক্টোবর ধানমন্ডি ডব্লিউভিএ সেন্টারে। 

IMG 20201009 WA0019

এসময় ‘নারী উদ্যোক্তার খোঁজে’ সংগঠনের ফাউন্ডার চেয়ারম্যান উর্মি রহমান বলেন, ” আমরা এই আয়োজনটা এত কঠিন সময়ে শুরু করি যখন গোটা পৃথিবীর মানুষ থমকে আছে৷ রোগ শোকের পাশাপাশি মানুষ মানসিক ভাবে ভীষণ বিপর্যস্ত ছিলেন। তাই আমি  প্রতিভার বিকাশ ঘটানোর কাজে মেয়েদের ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করেছি। এছাড়া আমরা যারা একটু শহর কেন্দ্রীক তারা সব কিছুতে একটু সুযোগ বেশি পেয়ে থাকি। কিন্তু অন্য জেলা থেকে চাইলে হুট করে কোথাও অংশগ্রহণ করতে পারেনা। কিন্তু দেখেন আজ আমাদের এই আয়োজনে অংশগ্রহণ কারেছেন আপনারা।

IMG 20201009 WA0024

উর্মী রহমান আরো বলেন, “আমি সকলের সহযোগিতা চাই৷ এই আয়োজন আমরা প্রতিবছর একবার করে করতে চাই”।

এছাড়াও উপস্থিত সকল অতিথিরা ছোট ছোট করে তাদের বক্তব্য রাখেন এবং সকলের বক্তব্যেই উদ্যোক্তাবান্ধব বাংলাদেশ সৃষ্টির দৃঢ় সংকল্প পরিলক্ষিত হয়। তারা হাতে হাত রেখে এগিয়ে নিতে চান দেশকে উন্নতির চরম শিখরে।


বিপ্লব আহসান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here