উদ্যোক্তা- শামসুন নাহার জ্যোতি

সমাজের তথাকথিত নিয়মের বাইরে নিজের পরিচয় উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলা সহজ নয়। কিন্তু নিয়মের বাইরে গিয়ে সমাজে একজন নারী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে তুলেছেন শামসুন নাহার জ্যোতি, যিনি ‘বিভব’র স্বত্বাধিকারী। অজস্র চড়াই-উতরাই পেরিয়ে আজ তিনি সফল উদ্যোক্তা।

গল্পের শুরুটা শৈশব থেকে। চট্টগ্রামের মেয়ে শামসুর নাহার জ্যোতি ছোটবেলা থেকেই বাবাকে ব্যবসা করতে দেখেছেন। বাবার কাজকে ভালোবাসতেন, ঠিক তখনও তিনি জানতেন না তার এ ছোটবেলার অনুপ্রেরণা বড় হয়ে তাকে উদ্যোক্তা হতে সাহায্য করবে। পড়াশোনা শেষ করে যখন সবাই চাকরির পেছনে ছোটেন, ঠিক সে সময় সামছুন নাহার সামলাচ্ছেন ‘বিভব’। তিনি বর্তমানে কাজ করছেন বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী গহনা ও আচার নিয়ে।

সামছু নাহারের বেড়ে ওঠেন ঢাকাতে। তিনি মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল থেকে এসএসসি এবং সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি শেষ করেন পরবর্তী সময়ে পড়াশোনা শেষ এমবিএ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।
এমবিএ করার সময়ে চিন্তা করলেন নতুন কিছু করা যায় কি না। এরই মধ্যে স্বামীর ব্যবসার সাথে যুক্ত ছিলেন। কাঠের জুয়েলারি বক্স নিয়ে কাজ করার কথা চিন্তা করলেন মেয়ে হয়ে কারখানায় যেয়ে কাজ করাটা কষ্টের ছিলো। তবুও তিনি দুই হাজার টাকা দিয়ে গহনা বানানোর কিছু সামগ্রী ক্রয় করলেন এবং নিজেরা ছোট ছোট ফটোগ্রাফি করে নিজের পেইজে দিতে শুরু করেলন। তিনি পেইজের নাম দেন ‘বিভব’। তিনি বলেন, ‘ঘরের মানুষ থেকেই ব্যবসা টার শুরু।’

ছোট থেকেই জুয়েলারী খুব পছন্দ করেন সেই টান থেকেই উদ্যোক্তা হিসেবে যাত্রা শুরু। তিনি সিলভার, আফগানি গহনা বিভিন্ন ধরনের গহনা নিয়ে কাজ করছেন।
তিনি বলেন, ‘গহনার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের আচার তৈরি করি। আমার এ কাজে মা সাহায্য করছেন। ৩ জন কর্মী এবং পণ্য পৌঁছে দিতে অনেকে কাজ করছে। দেশের প্রতিটা কোনায় পণ্য পৌঁছে দিয়েছেন। তার এ পণ্য নিয়ে গেছেন বিদেশেও।ভারত, এমরিকা ,লন্ডন,কানাডাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।
তিনি বলেন,প্রতিমাসে ৩ লাখ টাকার পণ্য বিক্রি করি। চাকরি থেকে নিজে উদ্যোক্তা হওয়া টা জরুরি কারণ নিজের স্বাধীনতা বজায় রাখা যায়।

এছাড়াও ‘বিভব’ লাইফ স্টাইল দেশীয় পণ্য নিয়ে কাজ করছেন। তিনি বলেন,দেশীয় কারিগর দিয়ে হোম ডেকর ও লাইফস্টাইলের বিভিন্ন পণ্য নিয়ে কাজ করে চলেছেন।

উদ্যোক্তার পণ্য বিক্রির আয় থেকে অসহায় মানুষদের কাজে অনুপ্রেরণা যোগাতে নিজ উদ্যোগে নারীদের সেলাই মেশিন কিনে দেয়ার পাশাপাশি নানাভাবে অসহায় নারীদের সাহায্য করছেন। নিজেকে স্বাবলম্বী করার পাশাপাশি নারীর ক্ষমতায়নের যুগে এগিয়ে যাওয়ার জন্যই তার এই পদক্ষেপ। তিনি বলেন, ‘পরিবার ও নিজের দায়িত্ব নেওয়ার ইচ্ছা ছোটবেলা থেকেই ছিল, ‘বিভব’ সেই স্বনির্ভরতা এনে দিয়েছে।

শারমিন আক্তার
উদ্যোক্তা বার্তা ঢাকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here