আমেরিকা, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়াতে পৌঁছেছে মিষ্টির পণ্য

0

‘তোর মতো মেয়ে কিছুই করছিস না?’ ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে উদ্যোক্তা নহরে জান্নাত মিষ্টি স্কুলের এক ক্লাসমেটের এই কথাটায় প্রচন্ড রকমের ধাক্কা খান। সেখান থেকেই ভাবনার শুরু। ছোটবেলা থেকেই ইচ্ছে ছিল নিজের বলার মতো একটা পরিচয় হবে। ছেলে মেয়েকে সময় দিয়ে কিছু একটা করবেন। নিজের পরিচয় গড়ে তোলার জন্য উদ্যোক্তা হওয়ার চেয়ে বেস্ট অপশন আর কি হতে পারে? ভেবে দেখলেন টাঙ্গাইলের তাঁত পণ্য সম্পর্কে যতটা জানেন অন্য কোনো পণ্য সম্পর্কে এতোটা জানেন না। সেজন্যই তাঁত পণ্য নিয়ে কাজ শুরু করলেন। আসলে কাজতো সেটা নিয়েই করা উচিৎ যেটা সম্পর্কে তিনি এ টু জেড জানেন।

মফস্বল শহর টাঙ্গাইলে জন্ম ও বেড়ে ওঠা উদ্যোক্তা নহরে জান্নাত মিষ্টির। বর্তমানে টাঙ্গাইলেই অবস্থান করছেন তিনি। তাই টাঙ্গাইলের প্রত্যেকটা জিনিসের প্রতি তার অন্য রকম একটা মোহ কাজ করে। টাংগাইলের জাহাঙ্গীর স্মৃতি সেবাশ্রম থেকে প্রাথমিক, বিন্দুবাসিনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও কুমুদিনী সরকারি মহিলা কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করেন। পরবর্তীতে সরকারি সাদ’ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি সাহিত্যে ২য় বর্ষ পর্যন্ত পড়ালেখা করে আর শেষ করা হয়ে ওঠেনি ।

2 4

পড়াশোনা শেষ করার আগেই বিয়ে হয়ে যাওয়ায় ও বাচ্চার অসুস্থতার কারণে কোথাও চাকরি করেননি তিনি। ২০১৮ সালের ১৩ই মে তিনি তার উদ্যোগ শুরু করেন। টাঙ্গাইলের তাঁতের সোর্সিং থেকে শুরু করে প্রডাক্ট সম্পর্কে বেশ ধারনা ছিলো তার। সে জন্য টাঙ্গাইলের তাঁত পণ্য নিয়ে কাজ করার সিদ্ধান্তে অটুট থাকলে।

মায়ের কাছ থেকে মাত্র ৫০০০ টাকা ধার নিয়ে উদ্যোগ শুরু করেন। তার উৎপাদিত পণ্যের মধ্যে রয়েছে টাঙ্গাইলের তাঁতের সব ধরনের শাড়ী, সালোয়ার কামিজ, পাঞ্জাবি পিস, ওড়না, বাচ্চাদের শাড়ী। মোটকথা টাঙ্গাইলের তাঁতের সব ধরনের পণ্য নিয়ে কাজ করছেন তিনি। যেহেতু তাঁত পণ্য সেহেতু তাঁতীদের দিয়েই তার মূল কাজ। আগে সরাসরি মহাজনদের কাছ থেকে পণ্য নিয়ে আসতেন। কিন্তু বর্তমানে বেশ কয়েকজন তাঁতিদের দিয়ে নিজে পণ্য তৈরি করাচ্ছেন। তাছাড়া তার উদ্যোগের অন্যান্য কাজ সব তিনি একাই করে থাকেন। প্রডাক্ট সোর্সিং থেকে শুরু করে প্রডাক্ট ডেলিভারি সব তিনি একাই করেন।

3 4

তার উদ্যোগের নাম ‘আরওয়া’। নিজের মেয়ের নামেই উদ্যোগের নামকরণ করেছেন, যার অর্থ হচ্ছে ‘সবচেয়ে সুন্দর’। তার উদ্যোগটি সম্পূর্ণ অনলাইন বেইসড। উদ্যোক্তার ফেইসবুক পেইজটির নামও ‘আরওয়া’। এখন পর্যন্ত আমেরিকা, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়াতে তিনি তার পণ্য রপ্তানি করেছেন। তবে তা খুবই সল্প পরিসরে। ভবিষ্যতে ইচ্ছে আছে ব্যাপক পরিসরে রপ্তানিতে যাওয়ার। বর্তমানে দেশের ৬৪ জেলাতেই তার পণ্য যায়। উই-এর সুবাদে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও পৌঁছে গিয়েছে তার পণ্য। অকেশন বুঝেই আসলে তার উৎপাদন কমবেশি হয়। তাই মাসিক গড় উৎপাদনটা বলা একটু মুশকিল। মাসে মোটামুটি ৫০-৬০ হাজার টাকা সেল হয়।

4 2

অবসরপ্রাপ্ত সরকারি চাকুরিজীবী ফজলুল করিম ও গৃহিণী সায়মা করিমের একমাত্র কন্যা উদ্যোক্তা নহরে জান্নাত মিষ্টি তার উদ্যোগের মাধ্যমে আরো হাজারো মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে চান। দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে আরওয়াকে একটা ব্র্যান্ড হিসেবে দেশের বাইরেও ছড়িয়ে দিতে চান।

সাইদ হাফিজ
উদ্যোক্তা বার্তা, খুলনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here